২২ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

সর্বশেষ:

শারীরিক প্রতিবন্ধীকে নতুন ভ্যান

কেএমপিতে ভ্যান হারানো শারীরিক প্রতিবন্ধীকে নতুন ভ্যান উপহার- পুলিশ কমিশনার

শারীরিক প্রতিবন্ধীকে নতুন ভ্যান
Facebook
Twitter
LinkedIn

ওয়াহিদ মুরাদ, খুলনা।

আজ সোমবার (২ অক্টোবর) দুপুর ১.৩০ মিনিটের সময় সদর দপ্তরস্থ কার্যালয়ে কেএমপি’র পুলিশ কমিশনার মোঃ মোজাম্মেল হক বিপিএম (বার) পিপিএম শারীরিক প্রতিবন্ধী মোঃ রাসেল শেখকে ১টি নতুন ব্যাটারি চালিত ভ্যান উপহার দেন।

কেএমপির মানবিক পুলিশ কমিশনার তার বক্তব্যে বলেন, খুলনা মেট্রেপলিটন পুলিশ খুলনা মহানগরের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ বিশেষ করে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ দমন, জুয়া ও দেহ ব্যবসাসহ বিভিন্ন ধরণের ফৌজদারী অপরাধ নিয়ন্ত্রণে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে। পাশাপাশি বাংলাদেশ পুলিশ মানবিক কাজ করে যাচ্ছে বিশেষ করে করোনাকালে মানবিক কাজে আমরা পিছপা হইনি।

গত ১১ই আগস্ট রাসেল নামে এক ব্যক্তির ভ্যান গাড়ি হারিয়ে যায়। তার বৃদ্ধ বাবা-মা এবং ২ বোন রয়েছে। সে ৩ বছর যাবৎ ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত। সে একটি এনজিও থেকে উচ্চ সুদে ঋণ নিয়ে একটা ভ্যান গাড়ি ক্রয় করে। ঐদিন রাত ৩টা থেকে ৪টায় মধ্যে ভ্যানটি চুরি হয়ে যায়। সে তার পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি হিসেবে ভ্যান চুরি হওয়াতে মানবেতর জীবনযাপন করে আসছিল। ভ্যানটি চুরি হওয়ায় রাসেলের পরিবারে দুর্ভোগ নেমে আসে। সে খানজাহান আলী থানা পুলিশকে জানালে অফিসার ইনচার্জ চুরি মামলা রুজু করে ঘটনার সাথে জড়িত ১ জনকে আটক করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করে।

পরবর্তীতে উক্ত বিষয়টি আমাকে অবগত করলে অফিসার ইনচার্জ খানজাহান আলীকে প্রাথমিক সহায়তা প্রদান করার নির্দেশনা প্রদান করি। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ শুধু আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার কাজেই নিজেদের নিয়োজিত রাখেননি। মানবিকতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন রাসেলের পরিবারের প্রতি। তারই অংশ হিসেবে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে অসহায় অবস্থা থেকে উত্তোরণের লক্ষ্যে নতুন ভ্যান উপহার দিয়েছি এবং খাদ্য সহায়তার ব্যবস্থা করেছি।

তার ভ্যান উদ্ধার হলে সে একটি ভাড়া প্রদান করবেন এবং অপরটি দিয়ে নিজে উপার্জন করবেন। এছাড়াও, তাকে দেয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী চুরি হওয়া ভ্যান উদ্ধারের জন্য আমাদের তৎপরতা অব্যাহত আছে। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের এমন মানবিক উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে এবং আমাদের সাধ্য অনুযায়ী নিম্নবিত্ত , অসহায় মানুষের পাশে থাকবো।

এ সময় প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন কেএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (এএন্ডও) সরদার রকিবুল ইসলাম বিপিএম-সেবা, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) মোঃ সাজিদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক এন্ড প্রটোকল) মোছাঃ তাসলিমা খাতুন, ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (সদর) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, বিশেষ পুলিশ সুপার (সিটিএসবি) রাশিদা বেগম পিপিএম-সেবা, ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (এফএন্ডবি) শেখ মনিরুজ্জামান মিঠু, ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (ইএন্ডডি) মোঃ কামরুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাবৃন্দ এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

Facebook
Twitter
LinkedIn

সর্বশেষ খবর

abu sufian
dainikbd-ads
Arup Juarder Khulna Batiaghata